শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:১৩ পূর্বাহ্ন

১৫ বছরে পা দিলো সীতাকুন্ড সমিতি চট্টগ্রাম

১৫ বছরে পা দিলো সীতাকুন্ড সমিতি চট্টগ্রাম

Spread the love

ইলিয়াছ ভূঁইয়া

চট্টগ্রামের শিল্পাঞ্চল নামে পরিচিত সীতাকুণ্ড উপজেলা৷ আর এ উপজেলার যে সকল ব্যক্তিবর্গ চট্টগ্রাম শহরে বসবাস করেন তাদের নিয়ে গঠিত সংগঠন “সীতাকুণ্ড সমিতি- চট্টগ্রাম”৷ ১২ নভেম্বর শুক্রবার সংগঠনটি ১৪ বছর পেরিয়ে ১৫ বছরে পা দিল। এ উপলক্ষে কেক কেটে বর্ষপূর্তি উদযাপন করেছে সমিতির কর্মকর্তা ও সদস্যগন।

সন্ধ্যায় নগরীর একেখাঁন এলাকায় আর,এস এল ফেয়ার হাউজে অনুষ্ঠানে সীতাকুণ্ড সমিতি-চট্টগ্রাম এর সভাপতি অধ্যাপক মো.আবুল মনছুর ভূইয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক লায়ন নাছির উদ্দিন মানিকের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সমিতির চট্টগ্রাম এর প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক ও সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আজম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম-আহবায়ক দিদারুল ইসলাম মাহমুদ চৌধুরী, আহবায়ক ও সাবেক সভাপতি লায়ন এম.ই. আজিজ চৌধুরী লিটন, প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম-আহবায়ক ও সাবেক সভাপতি এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক লায়ন মো.গিয়াস উদ্দিন।

উপস্থিত ছিলেন কার্যনির্বাহী কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি লায়ন মো.বেলাল হোসেন, সহ-সভাপতি হাজী ইউসুফ শাহ্ ,লায়ন কাজী আলী আকবর জাসেদ,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লায়ন আলীম উল্যাহ মুরাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন মুহাম্মদ আবুল হাসনাত, দপ্তর সম্পাদক লায়ন মোস্তফা কামাল ভূইয়া জুয়েল, শিক্ষা ও মানব সম্পদ মো.জিয়াউল ইসলাম শিবলু, সাংস্কৃতিক সম্পাদক এস.এম তবরেজ,আইন বিষয়ক সম্পাদক এড.সরওয়ার হোসেন লাভলু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়র লায়ন কামরুদৌজা, সমাজ কল্যান সম্পাদক লায়ন মফিজুর রহমান সাজ্জাদ, ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক লায়ন মো.কমাল উদ্দিন ভূইয়া,যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক ইকবাল করিম তুষান,স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা সম্পাদক নুরুল ইসলাম শাহাবউদ্দিন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা কাজী মাসুদা খানম, সদস্য মো.জামসেদ রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে সংগঠনের সহ-সভাপতি হাজী ইউসুফ শাহ্ এর সৌজন্যে নৈশভোজের আয়োজন করা হয়।

উল্লেখ্য, সীতাকুণ্ডের মানুষ বাংলাদেশের সব উপজেলায় খোঁজে পাওয়া যাবে না। কিন্তু বন্দরশহর চট্টগ্রামের প্রবেশদ্বার শিল্পাঞ্চল সীতাকুণ্ডে দেশের সব উপজেলার লোকজন আছে যারা এখানে কাজ করে জীবীকা নির্বাহ করে। গিরি-সৈকতের ছায়াঘেরা, অতুলনীয় নৈসর্গিক সৌন্দর্যের সম্ভার, ভৌগলিক বৈশিষ্ট্যে অনন্যসাধারণ সীতাকুণ্ডে ছোট-বড়-মাঝারি মিলিয়ে দেড়শতাধিক শিল্প-কারখানা আছে, আছে শতাধিক শিপব্রেকিং ইয়ার্ড। এছাড়া হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম তীর্থস্থানের কারণে সীতাকুণ্ড ভারতীয় উপমহাদেশজুড়ে অতিপরিচিত এক জনপদের নাম। সীতাকুণ্ডে জমির আইলে যেভাবে সীম উৎপাদন হয়, দেশের আর কোথাও তা হয় না। সবকিছু মিলিয়ে সীতাকুণ্ডের তুলনা সীতাকুণ্ডই। সীতাকুণ্ডের মানুষগলো তুলনামূলকভাবে শান্তিপ্রিয় ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। রাজনৈতিক দাঙ্গা-হাঙ্গামা ও সামাজিক দ্বন্দ্ব¦-সংঘাত এখানে তেমন একটা নেই বললে চলে। হিন্দুদের তীর্থস্থান হলেও সব ধর্মের সমন্বয়ে গড়া এ জনপদ অসাম্প্রদায়িকতার এক অপূর্ব নিদর্শন। বাংলাদেশের প্রথম ইকোপার্ক-সীতাকুণ্ড বোটানিক্যাল গার্ডেন ও ইকো-পার্ক, চন্দ্রনাথ পাহাড় ও চন্দ্রনাথ মন্দির, গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকতসহ এখানে অনেক পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে। জাতীয় কোষাগারে উল্লেখযোগ্য অর্থ-যোগানদাতা সীতাকুণ্ডের বহু মানুষ ব্যবসা-বাণিজ্য ও চাকরি-বাকরির কারণে চট্টগ্রাম শহরে বসবাস করেন। নিজেদের মধ্যে ঐক্য, সম্প্রীতি ও পারস্পরিক প্রয়োজনের তাগিদে চট্টগ্রাম মহানগরে তারা গড়ে তোলেছে সীতাকুণ্ড সমিতি-চট্টগ্রাম।

 

© আইন আদালত প্রতিদিন

 5,602 total views,  2 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web