বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:২০ পূর্বাহ্ন

সংঘর্ষের ৭ ঘণ্টা পর রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

সংঘর্ষের ৭ ঘণ্টা পর রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কুমিল্লায় ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনায় সাত ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকা ও সিলেটের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। রোববার (২৯ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে লাইনচ্যুত হওয়া বগিটি সরিয়ে নিলে পুনরায় ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার শফিকুর রহমান ভূঁইয়া গণ্যমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, ট্রেন লাইনচ্যুতের ঘটনায় কুমিল্লা স্টেশনে সিলেটে থেকে ছেড়ে চট্টগ্রামগামী উদায়ন এক্সপ্রেস ও ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা তূর্ণা নিশিতা এক্সপ্রেস আটকা পড়ে। সাত ঘণ্টার পর রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হলে এগুলো ছেড়ে যায়।
জানা যায়, চট্টগ্রামগামী মহানগর এক্সপ্রেস শনিবার দিবাগত রাত সোয়া ২টার দিকে নির্দিষ্ট সময় থেকে কিছুটা দেরিতে কুমিল্লা থেকে ছেড়ে যায়। তিন-চার মিনিট পর পদুয়ার বাজার রেলক্রসিংয়ের পাশে এলে দাঁড়িয়ে থাকে একটি পিকআপ ভ্যানের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এসময় ট্রেনের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এতে বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চলাচল।
কুমিল্লা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইসমাইল হোসেন সিরাজী জানান, রেলক্রসিং অতিক্রমের সময় বিকল হয়ে যায় সবজি বোঝাই একটি পিকআপ। সেটি ধাক্কা দিয়ে সরানোর সময় চলে আসে চট্টগ্রামগামী মহানগর এক্সপ্রেস। দ্রুতগতিতে থাকায় ট্রেন থামাতে ব্যর্থ হয় গেটম্যান। এতে ট্রেনের ধাক্কায় লণ্ডভণ্ড হয় পিকআপ। লাইনচ্যুত হয় মহানগর এক্সপ্রেস। দুর্ঘটনায় তেমন কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। কয়েকজন সামান্য আহত হলেও তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে, এখন তারা সুস্থ।

রেলসূত্র জানায়, এ দুঘর্টনার কারণে ঢাকা, সিলেট ও ময়মনসিংহ হতে চট্টগ্রাম অভিমুখী বেশ কয়েকটি ট্রেন বিভিন্ন স্টেশনে আটকা পড়েছে। কুমিল্লা রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার সফিকুর রহমান ভূঁইয়া জানান, এখনো ঢাকা-চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম-সিলেট ও ঢাকা-নোয়াখালীর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়নি।
এদিকে : দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া পিকআপ থেকে সবজি নেওয়ার হিড়িক : স্থানীয় সাজু আক্তার বলেন, করলা-চিচিঙা সবাই নিচ্ছে, তাই আমিও নিচ্ছি। সবজিগুলো গাড়ি চাকার নিচে পড়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আব্দুল মান্নান নামে আরেকজন বলেন, পাশের বাড়ির বড় ভাই খবর দেওয়ায় এসেছি। কিছু সবজি বিক্রি করব, কিছু খাওয়ার জন্য বাসায় নিয়ে যাচ্ছি। লাকসাম রেলওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার জসিম বলেন, ট্রাকের চালক ও সবজি মালিকের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তাদের আইনের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। সদর দক্ষিণ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক খালেদ মোশাররফ জানান, দুর্ঘটনার পর উৎসুক জনতা ট্রাকে থাকা সবজি নেওয়ার জন্য কাড়াকাড়ি শুরু করে। এ সময় উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হয়। তাদের নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছি।
এর আগে শনিবার (২৮ আগস্ট) রাত ২টার দিকে জেলার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকায় রেলক্রসিংয়ে ট্রেন ও পিকআপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকা ও সিলেটের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এদিকে ঘটনা তদন্তে চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। চট্টগ্রাম বিভাগীয় রেলওয়ে পরিবহন কর্মকর্তা স্নেহাশীষ দাসকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়।

 132 total views,  1 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web