বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন

শোক-শ্রদ্ধায় চট্টগ্রামে জাতির পিতাকে স্মরণ

শোক-শ্রদ্ধায় চট্টগ্রামে জাতির পিতাকে স্মরণ

ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে তাঁকে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছে চট্টগ্রামের মানুষ। রোববার ভোর হতেই ফুল হাতে কালো রঙের ব্যানারে জাতির জনকের প্রতিকৃতির কাছে অশ্রুসিক্ত নয়নে ছুটে যান চট্টগ্রামের হাজার হাজার মুজিব প্রেমিক। সকালের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় বিভাগীয় কমিশনারের পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে। পরে একে একে সমাজের বিশিষ্ট ও সর্বস্তরের মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
দিবসটি উপলক্ষে রোববার (১৫ আগস্ট) সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সব সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে উত্তোলন করা হয়। নগর ও উপজেলাজুড়ে মাইকে প্রচার করা হয় বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও দেশাত্মবোধক গান। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলো আয়োজন করা হয় প্রার্থণার।
দিনের শুরুতে সকাল ৯টায় চট্টগ্রাম নগরের শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচির শুরু করেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. কামরুল হাসান ও জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান। এ সময় বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) একটি চৌকস দল এ সময় সশস্ত্র সালাম জানায়।
এরপর চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর, জেলা সিভিল সার্জন অফিস, চট্টগ্রামের নৌ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোমিনুল ইসলাম ভূঁইয়ার নেতৃত্বে নৌ পুলিশ, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
শিল্পকলায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে সিএমপি কমিশনার দামপাড়া পুলিশ লাইন চত্বরে সহকর্মীদের নিয়ে পুনরায় শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) সানা শামীনুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশন) মো. শামসুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) শ্যামল কুমার নাথ, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মো. আমির জাফর সহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে হালিশহর বড়পোলে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্মিত জাতির জনকের ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ। ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনসহ নগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
একই সময়ে চসিকের প্রধান কার্যালয়ের সামনে নির্মিত জাতির জনকের মূর‌্যালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরীসহ চসিকের কর্মকর্তারা। এসময় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের শহীদদের স্মরণে এ সময় বিশেষ মোনাজাতও অনুষ্ঠিত হয়।
চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড মিলনায়তনে রোববার (১৫ আগস্ট) সকাল ১০টায় জাতির পিতার ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শিক্ষাবোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক ড. বিপ্লব গাঙ্গুলির সভাপতিত্বে ও উপসচিব মোহাম্মদ বেলাল হোসেনের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর প্রদীপ চক্রবর্তী। বক্তব্য দেন সচিব প্রফেসর আবদুল আলীম, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নারায়ণ চন্দ্র নাথ, কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর মো. জাহেদুল হক, উপপরিচালক (হিসাব) তাওয়ারিক আলম, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নারায়ণ নাথ প্রমূখ।
বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালির ইতিহাসের আত্মপরিচয়ের প্রতীক। এই মহান নেতার আদর্শ ধারণ করে দেশকে সোনার বাংলায় পরিণত করতে হবে।
রোববার (১৫ আগস্ট) সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও আমাদের করণীয়’ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। উপ-পরিচালক ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়ার সঞ্চালনায় সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. ইসমাইল খান। বক্তব্য দেন রেজিস্টার (ভারপ্রাপ্ত) ডা. হাসিনা নাসরিন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ডা. দেলোয়ার হোসেন, বিআইটিআইডি’র ল্যাব ইনচার্জ ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. শাকিল আহমেদ প্রমুখ। এরআগে সকালে জাতির পিতার ম্যুরালে ভিসি’র নেতৃত্বে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয়। এসময় বঙ্গবন্ধু ও পরিবারের সকল শহীদের জন্য দোয়া এবং মোনাজাত করা হয়।
চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতির পিতার ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে চুয়েট পরিবার। ভিসি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলমের নেতৃত্বে বিভিন্ন অনুষদের ডিনরা পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। শোক দিবসের অন্যান্য কর্মসূচীর মধ্যে ছিল- শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়া মাহফিল, ছাত্র-ছাত্রী ও শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে রচনা প্রতিযোগিতা প্রভৃতি।
স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে বাংলাদেশ চা বোর্ডের চট্টগ্রামস্থ প্রধান কার্যালয়ে। জাতির পিতার জীবন ও কর্মের উপর অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম। বোর্ডের সদস্য (অর্থ ও বাণিজ্য) ড. নাজনীন কাউসার চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন বোর্ডের সদস্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) জনাব মোহাম্মদ নুরুল আলম চৌধুরী, সচিব (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মাদ রুহুল আমিন, উপ-পরিচালক (পরিকল্পনা) জনাব মুনির আহমদ।
মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধু ১৯৫৭ সালের ৪ জুন থেকে ১৯৫৮ সালের ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত চা বোর্ডের প্রথম বাঙালি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। চা শিল্পের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধুর নানামুখী পদক্ষেপের ধারাবাহিকতায় বর্তমানে চা দেশের একটি টেকসই শিল্প হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

 160 total views,  1 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web