বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:১৮ পূর্বাহ্ন

মেয়াদ শেষ ৮৬ বছর আগেই এখনো চলছে ট্রেন!

মেয়াদ শেষ ৮৬ বছর আগেই এখনো চলছে ট্রেন!

তিস্তা রেল সেতুর মেয়াদ শেষ হওয়ার পর পেরিয়ে গেছে ৮৬ বছর। কিন্তু সেতুর ওপর দিয়ে রেল চলাচল বন্ধ হয়নি। এই সেতু দিয়ে এখনো চরম ঝুঁকি নিয়ে আগের মতো চলাচল করছে রেলগাড়ি।

পশ্চিমাঞ্চলীয় রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, রংপুরের সঙ্গে লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রমের রেল যোগাযোগের জন্য তিস্তা রেল সেতু নির্মিত হয়েছিল ১৮৩৪ সালে। বর্তমানে এ সেতুর বয়স ১৮৬ বছর। নির্মাণের সময় সেতুটির মেয়াদ ধরা হয়েছিল ১০০ বছর। এ হিসাবে মেয়াদ শেষের পর ৮৬ বছর পার করেছে এ সেতু। এর একাংশ রংপুরের কাউনিয়া উপজেলা এবং অপর অংশ পড়েছে লালমনিরহাট সদর উপজেলায়। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সেতুটিতে মিত্রবাহিনীর বোমায় একটি গার্ডার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে ১৯৭২ সালে সেতুটি পুনরায় চালু করা হয়। ১৯৭৮ সালে ট্রেনের পাশাপাশি সড়ক যোগাযোগ শুরু করা হয়। তখন থেকে সেতু দিয়ে ট্রেন ও যাত্রীবাহী বাস, ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করে। এভাবে ক্রমেই সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হতে থাকে।

২০০১ সালে রেল সেতুর পাশে তিস্তা সড়ক সেতু নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বতর্মান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিস্তা সড়ক সেতু উদ্বোধনের পর তা যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। আর সড়ক সেতু চালু হওয়ার পর মেয়াদোত্তীর্ণ রেল সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ করা হলেও ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রাখা হয়। বর্তমানে সেতু দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ১৫টির মতো ট্রেন লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে চলাচল করছে। মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও এভাবে ব্যবহার হতে থাকায় যে কোনো মুহূর্তে এখানে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। রেলমন্ত্রীর আশ্বাস : রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন মুঠোফোনে বলেছেন, মেয়াদোত্তীর্ণ তিস্তা রেল সেতুর পাশেই আরেকটি নতুন সেতু নির্মাণ করা হবে। এরই মধ্যে সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে রেল বিভাগ। এ জন্য প্রাথমিক সমীক্ষাও করা হয়েছে। নকশা তৈরি হয়েছে। খুব দ্রুত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের কাজ হাতে নেওয়া হবে। তিনি আরও জানান, সারা দেশের রেলপথ ব্রডগেজে রূপান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। পার্বতীপুর থেকে কাউনিয়া পর্যন্ত ব্রডগেজ লাইন স্থাপনের পরিকল্পনা চূড়ান্ত হয়েছে। এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে রংপুরে ট্রেনের সংখ্যা বাড়বে।

সুত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

 128 total views,  1 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web