বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:১৬ অপরাহ্ন

বাগেরহাটে নিজ বাড়িতে কালি প্রতিমা উঠেছে গুজব ছড়িয়ে প্রতারণার চেষ্টা

বাগেরহাটে নিজ বাড়িতে কালি প্রতিমা উঠেছে গুজব ছড়িয়ে প্রতারণার চেষ্টা

ম.ম.রবি ডাকুয়া,বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ
বাগেরহাটে নিজবাড়িতে কালি প্রতিমা ওঠার গুজব ছড়ালো অন্ধ ভক্ত মহিলা।দেখতে শত শত লোকের ভিড় স্থানীয়দের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।প্রতিবেশীদের কয়েকজন জানান, রাতের আধারে প্রতিমা বসিয়ে, গুজব ছড়িয়ে বড় কালী ভক্ত সাজার চেষ্টা করছে মায়া রানী শীল। এগুলো প্রতারনা ছাড়া আর কিছুই না। প্রনামীর নামে আবার টাকাও তোলা হচ্ছে। এরই মধ্যে ভালো ব্যবসাও জমে উঠেছে।অনেকে এর প্রতিকারের ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ করেছে।
বাগেরহাট সদর উপজেলার বেমরতা ইউনিয়নের জয়গাছি গ্রাম। শতাব্দী থেকে আজ অবধি হিন্দু-মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের বসবাস এই গ্রামে। গত (১৫ নভেম্বর) সকালে এই গ্রামের বাসিন্দা মৃত মহাদেব কুমার শীলের বাড়ীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের দেবী (কালী)র প্রতিমা উঠেছে চারদিকে এমন খবর ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এমন খবরে মহাদেবের বাড়ীতে হিন্দু-মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষ,বৃদ্ধা ও শিশুসহ সকল বয়সের মানুষের ভীড় জমাতে থাকে। সময়ের সাথে সাথে বাড়ীর লোকজন বাঁসের বেড়া দিয়ে প্রতিমা ওঠার স্থানটি ঘিরে ফেলে, লিখে দেয়া হয় (বাঁসে কেউ হাত দিবেন না)এ যেন এক অভিনব প্রতারনার কৌশল দাবি স্থানীয়দের। পাশেই রাখা হয়েছে একটি ঝুড়ি প্রতিমা দর্শনের পর (মনবাসনা পুরনের) প্রনামী হিসাবে লোকজন টাকা ফেলছে ওই ঝুড়িতে। এ যে সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ’র লালসালু উপন্যাসের এক অনবদ্য উপখ্যান । শুধু পার্থক্য লালসালু বদলে এখানে ব্যবহার হয়েছে বাঁসের বেড়া। জয়গাছি গ্রামে মহাদেব শীলের বাড়ীতে সরেজমিনে গিয়ে চোখে পড়ে ঠিক এমন চিত্র।

জয়গাছি গ্রামের বাসিন্দা শ্যামল শীলের সহ আরো অনেক হিন্দু মুসলিমদের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে । রাতারাতি এখানে কি ভাবে প্রতিমা উঠলো এমন প্রশ্নের জবাবে তারা এর সদুত্তর দিতে পারেননি বলেন, কি ভাবে এখানে প্রতিমা জেগে উঠলো আমাদের জানা নেই। আমরা গিয়ে ছিলাম মহাদেবের বাড়ীতে মাটি খুড়ে প্রমিতা বেড় হয়ে উঠেছে, এমন কোন আলামত ও দেখতে পেলাম না। ঘটনাটি আমার কাছে বিশ্বাস যোগ্য মনে হয় না। মূলত সহজ সরল মানুষের অন্ধ বিশ্বাসকে কাজে লাগিয়ে ব্যবসা করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

মহাদেব কুমার শীল এর স্ত্রী মায়া রানী শীল (৪৬)বলেন, আমি “মা কালী’র” ভক্ত। মা আমাকে স্বপ্নে দেখিয়েছেন তিনি আসছেন। তিনি আমার বাড়ীতে এসেছেন। স্বপ্নে আমাকে “ঘটপূজা করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে” এটা সম্পন্ন করলেই “মা কালী” তার অলৌকিক ক্ষমতা দেখাবেন। অন্য কেউ এখানে প্রতিমা রেখেছেন কি না এমন প্রশ্ন করা হলে, চোখ বন্ধ করে “জয় মা কালী” বলে চিৎকার শুরু করলেন মায়া রানী। এসময় তিনি মাটিতে গড়াগড়ি দিতে থাকলেন। এগিয়ে এসে তার ছেলেরা লোকজনদের সরিয়ে দিতে লাগলেন। কি হয়েছে জিজ্ঞাসা করলে তার ছেলেরা জানান, মায়ের উপর “মা কালী” ভড় করেছে।
মায়া রানী শীল এর ছেলে সঞ্জয় কুমার শীল (২৫) ও বলেন, কেউ পরিকল্পিত ভাবে এখানে প্রতিমা রেখেছেন কি না আমাদের জানা নেই। ঘটনা জানাজানির পর অনেকে দেখতে আসছে। কেউ আবার মনবাসনা পূরনের আশায় আসছে। “মা কালী’কে” প্রণাম শেষে প্রনামী হিসাবে অনেকেউ টাকা পয়সা দিচ্ছে।

বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে,এম আজিজুল ইসলাম এর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে ধর্মভিরু লোকজনকে আকৃষ্ট করার চেষ্টা হচ্ছিল। যেটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

 48 total views,  2 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web