রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৪৮ পূর্বাহ্ন

নিয়োগ জালিয়াতির মামলায় সেই আলোচিত নারী খাদ্য পরিদর্শকের বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট।

নিয়োগ জালিয়াতির মামলায় সেই আলোচিত নারী খাদ্য পরিদর্শকের বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট।

Spread the love

কলাপাড়া প্রতিনিধি।

খাদ্য পরিদর্শক পদে নিয়োগ জালিয়াতির দুদকের দায়ের করা মামলায় সেই আলোচিত নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানার বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট।

উত্তরপত্র ঘষা-মাজা করে নম্বর বাড়িয়ে অযোগ্য প্রার্থীদের খাদ্য পরিদর্শক পদে চাকরি দেওয়ার দায়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিবসহ ৫০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (১০ অক্টোবর) বিশেষ জজ আদালতে তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক আলী আকবর চার্জশিটটি জমা দেন। দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

দুদকের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হওয়ার পর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিবসহ ৫৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিল দুদক। ২০১৫ সালের ১০ অক্টোবর রাজধানীর শাহবাগ থানায় দুদকের তৎকালীন উপ-পরিচালক মো. মনিরুল হক বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, আসামিরা ‘পরস্পরের যোগসাজশে জালিয়াতি করে এবং গোপন আঁতাতের মাধ্যমে’ ৪৪ জনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

২০১১ সালের ২৩ ডিসেম্বর লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর মৌখিক পরীক্ষা শেষে ২০১২ সালের ১১ জানুয়ারি বিভাগীয় নির্বাচন/বাছাই কমিটির সভা শেষে উত্তীর্ণদের নাম ঘোষণা করা হয়। কিন্তু দুদকের তদন্তে দেখা যায়, বাছাই কমিটির সদস্য ও ডেভেলপমেন্ট প্ল্যানার্স অ্যান্ড কনসালটেন্টসের কর্মকর্তাদের যোগসাজশে লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণ হওয়া বা কম নম্বর পাওয়া ৪৪ পরীক্ষার্থীর লিখিত পরীক্ষার ওএমআর সিটে প্রাপ্ত নম্বরে জালিয়াতির মাধ্যমে বেশি বসিয়ে ৮০ ও তদূর্ধ্ব নম্বর দিয়ে ফল প্রকাশ করা হয়। ওই তালিকায় বিভাগীয় নির্বাচন বা বাছাই কমিটির সদস্যদেরও সই পাওয়া যায়। যেখানে আসামি ৪৩ জন পরীক্ষার্থীসহ মোট ৩২৮ জনকে খাদ্য অধিদপ্তরের খাদ্য পরিদর্শক পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।
দুদক দণ্ডবিধির ৪১৮/৪২০/৪৭৭(ক)/১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে।

দুদকের এই চার্জশিটভুক্ততে রয়েছে সেই আলোচিত নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা যার স্বামী থাকা স্বত্তেও দুই সন্তানের বাবা ওএমএস ডিলার মামুন হাওলাদানের সাথে পরকিয়ার প্রেমে লিপ্ত হয়ে তাকে বিয়ে করেন।

এর আগে দু’সন্তানের জননী মাসুমা আক্তার কলি তখন কলাপাড়ায় খাদ্য অধিদপ্তরের পদে থাকা নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা’র বিরুদ্ধে ৭ আগষ্ট ২০২১ কলাপাড়া থানায় ৯৫ নম্বর জিডি করেন। যাতে নারী খাদ্য পরিদর্শক তার স্বামী ওএমএস ডিলার মামুন হাওলাদার’র সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে তার দু’সন্তান সহ তাকে জীবন নাশের হুমকি প্রদানের অভিযোগ করেন। এছাড়া
প্রতিকার চেয়ে খাদ্য অধিদপ্তরে তিনি লিখিত আবেদন করেন।

এন আই অ্যাক্টের ৩৮ ধারার মামলায় অভিযুক্ত হয়ে নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা আদালত থেকে জামিনে মুক্ত থাকার বিষয়টি কর্তৃপক্ষের কাছে গোপন রাখার কারনে খাদ্য অধিদপ্তরের তদন্ত কমিটি কলাপাড়া খাদ্য নিয়ন্ত্রক কার্যালয়ে নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানাকে বরিশাল আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. জাহাঙ্গীর আলম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে চাকুরী থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

অবশেষে সাময়িক বরখাস্ত থাকা অবস্থাতেই খাদ্য পরিদর্শক পদে নিয়োগ জালিয়াতির দুদকের দায়ের করা মামলায় এই আলোচিত নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানার বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দিয়েছে দুদক।

 500 total views,  2 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web