বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন

চেয়ারম্যানের কাছে চাঁদা দাবি করা ভুয়া দুদক কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

চেয়ারম্যানের কাছে চাঁদা দাবি করা ভুয়া দুদক কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার বাঘুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল কাহহার সিদ্দিকীর কাছে চাঁদা দাবি করায় এক ভুয়া দুদক কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সামনে থেকে দুদকের উপ-পরিচালক পরিচয় দেওয়া ফয়সালকে আটকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রমনা থানার এসআই মাসুদ রানা।

আটক হওয়া ওই ব্যক্তি নিজেকে ফয়সাল পরিচয় দিলেও তাঁর আসল নাম জাহাঙ্গীর আলম। জাহাঙ্গীর ঢাকার ধামরাই উপজেলার সোয়াপুর গ্রামের মো. আব্দুল খালেকের ছেলে। জানা যায়, গতকাল রোববার সকাল পৌনে ১১টায় ০১৮৬৫-৫৫৩৬.. নম্বর থেকে চৌহালী উপজেলার বাঘুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল কাহহার সিদ্দিকীর নম্বরে কল আসে। কল রিসিভ করলে অপর দিক থেকে একজন নিজেকে দুদকের উপপরিচালক ফয়সাল বলে পরিচয় দেয়। এ সময় তিনি চেয়ারম্যানকে তিনি বলেন, ‘আপনার নামে বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগ আছে। এই অভিযোগ তদারকির দায়িত্বে আমি আছি। আপনি আগামীকাল সোমবার (৯ আগস্ট) সকালে আমার সঙ্গে দেখা করবেন। না আসলে অসুবিধা হবে। এসে কিছু টাকা পয়সা দিলে অভিযোগটি শেষ করে দিতে পারব।’

এ বিষয়ে বাঘুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও সম্ভুদিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল কাহহার সিদ্দিকী বলেন, দুদকের ওই কর্মকর্তা আমাকে ফোন করে নানা ভয়ভীতি দেখিয়েছে। পরে সোমবার সকালে দুর্নীতি দমন কমিশন প্রধান কার্যালয়ের সামনে যাই। তবে কর্মকর্তাকে বারবার ফোন দিলে সময়ক্ষেপণ করেন। একপর্যায়ে দুদকের প্রধান কার্যালয়ের মেইন গেটের সামনে সাক্ষাৎ করে একটি চিঠি ধরিয়ে দেয় ফয়সাল।

এ সময় তাঁর কথাবার্তা অসংলগ্ন মনে হলে দুদকের নিরাপত্তারক্ষী আক্তারুজ্জামান, মুকুল মিয়া ও মুখলেছুর রহমানের সহায়তায় ভুয়া দুদক কর্মকর্তা পরিচয় দানকারী ফয়সালক নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তার দেওয়া পরিচয়পত্রসহ সকল তথ্য মিথ্যা ও ভুয়া প্রমাণিত হলে তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় রমনা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে আটক ওই ভুয়া কর্মকর্তা পরিচয় দানকারীর কাছ থেকে দুদকের মহাপরিচালক (তদন্ত) মো. মিজানুর রহমান, স্বাক্ষরিত একটি ভুয়া চিঠি, একটি ভুয়া আইডি কার্ড (নাম: ইমতিয়াজ আহমদ, পদবি: সহকারী পরিদর্শক, দুর্নীতি দমন কমিশন, প্রধান কার্যালয়, ১, সেগুনবাগিচা, ঢাকা), একটি অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড, ধামরাই শাখা, ঢাকা চেক নম্বর ০২০০০০৫৮২১…,২টি মোবাইল সেট, ডাচ বাংলা ব্যাংকর একটি নেক্সাস কার্ড, এসআইবিএল ব্যাংক এর একটি ব্লাংক চেক ও নগদ ১৬০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

 44 total views,  1 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web