শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন

চট্টগ্রাম বারের নির্বাচন সম্পন্ন, চলছে গণনা

চট্টগ্রাম বারের নির্বাচন সম্পন্ন, চলছে গণনা

Spread the love

নির্বাচনে ভোট প্রদান করছেন
চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সদস্য ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এর শ্রদ্ধেয় আম্মা প্রফেসর অ্যাডভোকেট কামরুন নাহার বেগম।

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে , এখন চলছে গণনা।


বৃহস্পতিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে বিকেল ৪টায়।
চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী জানিয়েছেন, এবারের নির্বাচনে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ ১৯টি পদের বিপরীতে ২টি প্যানেলে ৩৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। একজন স্বতন্ত্র হিসেবে লড়ছেন। তার নাম কিশোর কুমার দাশ। তিনি সমন্বয় পরিষদ থেকে এবার মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র হিসেবে লড়ছেন।

নির্বাচনে ভোট প্রদান করছেন
চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সদস্য ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এর শ্রদ্ধেয় আম্মা প্রফেসর অ্যাডভোকেট কামরুন নাহার বেগম।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি, সহ-সাধারণ সম্পাদক, অর্থ সম্পাদক, লাইব্রেরি সম্পাদক, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক এবং ৭টি সদস্য পদসহ মোট ১৪টি পদে আওয়ামী লীগের সমর্থিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ জয়লাভ করে। অন্যদিকে সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি, তথ্যপ্রযুক্তি সম্পাদক ও তিনটি সদস্য পদ মিলে বিএনপির সমর্থিত আইনজীবী ঐক্য পরিষদ মোট পাঁচটি পদে জয়লাভ করেছিল। গতবার সভাপতি পদে এনামুল হক ও সাধারণ সম্পাদক পদে এএইচএম জিয়া উদ্দিন জয়ী হয়েছিলেন।

এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে লড়ছেন সমন্বয় পরিষদ থেকে আবু মোহাম্মদ হাশেম, সাধারণ সম্পাদক পদে বিগত দুবার নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক (বর্তমান সাধারণ সম্পাদক) এ এইচ এম জিয়াউদ্দিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে মো. ওমর ফারুক শিবলী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ঐক্য পরিষদ থেকে সভাপতি পদে লড়ছেন মো. নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আবদুস সাত্তার সরোয়ার, সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আসাদুর রহমান রিটু। সাধারণ সম্পাদক পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কিশোর কুমার দাশ।

৯টি সম্পাদকীয়, ১০টি নির্বাহী সদস্যসহ মোট ১৯টি পদে প্রার্থীরা লড়ছেন। সব কটি পদে প্রার্থী দিয়েছে সমন্বয় ও ঐক্য পরিষদ। তবে এবার একজনও প্রার্থী দেয়নি সমমনা সংসদ। সমমনা সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক তৌহিদুল মনির চৌধুরী বলেন, করোনার কারণে এবার প্রার্থী দেইনি। অনেকেই অসুস্থ ছিলেন। আগামীবার তারা নির্বাচনে লড়বেন। তাদের ভোটব্যাংক এবার কোন প্যানেলে যাবে, এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। তবে বিচার অঙ্গনকে ঘুষ, দুর্নীতিমুক্ত রাখতে যারা ভূমিকা পালন করতে পারবেন, তাদেরই বেছে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন এই নেতা।

 143 total views,  2 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web