www.ainadalatprotidin.com
জানুয়ারি ২৩, ২০২১
কলাপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের বাড়ির চলাচলের রাস্তায় কাটার বেড়া দিয়েছে প্রতিপক্ষ

কলাপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের বাড়ির চলাচলের রাস্তায় কাটার বেড়া দিয়েছে প্রতিপক্ষ

ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কলাপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের বাড়ির চলাচলের রাস্তায় কাটার বেড়া দিয়েছে প্রতিপক্ষ

এ, কে এইচ এম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিনের উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের পূর্ব বাদুরতলীর বাড়ির চলাচলের রাস্তায় কাটা দিয়ে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করেছে প্রতিপক্ষ। এতে ঘর বন্ধী হয়ে পড়েছে এ শিক্ষকের পরিবারটি।
বৃহস্পতিবার কোন উপায় না পেয়ে শিক্ষক জসিম উদ্দিন কলাপাড়া সাংবাদিক ফোরামে এক লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ২০০৮ সালে প্রতিপক্ষ আব্দুল মন্নান গাজীর ভাই মোঃ দেলোয়াার গাজী ওরফে রতন গাজী কাছ থেকে ২২০৭ নং দলিলে বাদুরতলী মৌজা ১০৭ নং খতিয়ানের ৫১৩ নং থেকে ০৩২ শতাংশ জমি খরিদ করে বাড়ি নির্মাণ করে পরিবার সহ বসবাস করে আসছেন।
ওই পরিবারের চলাচলের প্রধান রাস্তাটি প্রতিপক্ষ আব্দুল মন্নান গাজী কাটার বেড়া দিয়ে বন্ধ করে রেখেছে। এ রাস্তা বিরোধ নিয়ে টিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান কোক্কা ও ইউপি সদস্য ইব্রাহিম মিয়া কয়েক দফা সালিশ বৈঠক করেছে। কিন্তু আব্দুল মন্নান বাহিনীর শিক্ষক পরিবারের চলাচলের রাস্তা রাস্তায় কাটার বেড়া দেওয়া থামছে না।
জসিম উদ্দিন অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন মন্নান গাজী তাদের চলাচলের রাস্তায় বেড়া দেওয়ায় বাধা দিলে তাদেরকে জীবননাশসহ খুন-জখমের হুমকি দেয়।
এ শিক্ষকের নামে বি এস ডি.পি-৮৮৮ নং খতিয়ানে রেকর্ড সংশোধন হলেও মানছেন না আব্দুল মন্নান গাজীর সন্ত্রাসী কার্যক্রম।

অভিযোগ রয়েছে এর আগে আব্দুল মন্নান গাজীর অত্যাচারে ও চলাচলের রাস্তা বন্ধ করায় তার আপন ভাই আব্দুস সালাম, রতন গাজী ও হায়দার গাজী বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছে।
বর্তমানে এ শিক্ষক পরিবারটি মানবতার জীবন যাপন করছেন।
এ ব্যাপারে কয়েকজন স্থানীয় সংবাদকর্মী সত্যতা যাচাইয়ের জন্য সরেজমিনে গেলে, অভিযুক্ত মন্নান টের পেয়ে ঘটনার স্থানে এসে সাংবাদিকদের সামনে শিক্ষক জসিম উদ্দিনকে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ সহ জীবননাশের হুমকি দেয় যা মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করা রয়েছে।

অভিযুক্ত আব্দুল মন্নান গাজী উত্তেজিত হয়ে সাংবাদিকদের বলেন, বর্তমানে চলাচলের রাস্তায় কাঁটার বেড়া দিয়েছি, এখন দেয়ালের বেড়া দেয়া হবে।

 417 total views,  2 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *