শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:৩৭ পূর্বাহ্ন

অন্তঃস্বত্তা আসামির প্রবেশনে মুক্তি

অন্তঃস্বত্তা আসামির প্রবেশনে মুক্তি

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মারামারির একটি মামলায় সায়মা খাতুন নামে ছয় মাসের এক অন্তঃস্বত্তা আসামি ও তার স্বামী জাকির হোসেনকে ব্যতিক্রমধর্মী সাজা দিয়েছেন রাজশাহীর একটি আদালত। আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল ইসলাম ওই দম্পতিকে কারাগারে না পাঠিয়ে কিছু সামাজিক দায়িত্ব পালনের শর্ত দিয়ে নিজ বাড়িতে প্রবেশনে থেকে সংশোধনের সুযোগ করে দিয়েছেন।

তাদের বাড়ি গোদাগাড়ী উপজেলার ছোট নারায়নপুর গ্রামে। উভয়েই দিনমজুর এবং মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণাকালে বিচারক বলেন, আসামিরা দোষী সাব্যস্ত হলেও সায়মা অন্তঃস্বত্তা হওয়ায় মা ও শিশু স্বাস্থ্যের সুরক্ষার জন্য অনাগত সন্তানের জন্ম পরিকল্পিত এবং নিরাপদ হওয়া আবশ্যক। বর্তমানে কারাগারে ধারণ ক্ষমতার দ্বিগুণ কয়েদির বদ্ধ পরিবেশে বসবাসের কারণে করোনাকালে সেখানে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত দুরুহ ব্যাপার। এর প্রেক্ষিতে কারাগারে মা ও অনাগত সন্তানের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ঝুঁকিপূর্ণ।

তাই আসামিদের অপরাধের ধরন, বয়স, অনাগত সন্তান ও মায়ের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, নিরাপদ প্রসব ইত্যাদি বিবেচনায় তাদের প্রবেশনের সুযোগ প্রদান করা সমীচীন। এই সুযোগের বিপরীতে আসামিদের আদালত কর্তৃক আরোপিত শর্ত অবশ্যই মেনে চলতে হবে; না মানলে আসামিকে অবশ্যই ছয় মাসের সাজা ভোগের জন্য জেলে যেতে হবে। আর শর্ত ঠিক মত পালন করা হচ্ছে কিনা, তা নিশ্চিত করবেন প্রবেশন অফিসার আরিফুল ইসলাম।

প্রবেশন অফিসার আরিফুল ইসলাম বলেন, আসামি সম্পর্কে আদালতে আমরা একটি প্রাক-প্রতিবেদন পাঠাই। প্রতিবেদনে এটি তার প্রথম অপরাধ কিনা, সামাজিকভাবে গ্রহণযোগ্যতা, প্রতিবেশীরা তাকে কিভাবে মূল্যায়ন করে এসব বিষয় উল্লেখ করা হয়। আদালতে প্রতিবেদন বিবেচনায় নিয়ে সিদ্ধান্ত দেন।

 40 total views,  2 views today

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© আইন আদালত প্রতিদিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web